Home
লুণ্ঠিত স্বাধীনতা এবং প্রহসনের নির্বাচন PDF Print E-mail
Written by ফিরোজ মাহবুব কামাল   
Sunday, 04 November 2018 17:18

গণতন্ত্র কি স্রেফ নির্বাচন?

নির্বাচন এখন মুখোশে পরিণত হয়েছে বর্বর স্বৈরশাসকদেরও। দুশ্চরিত্র ব্যাভিচারিগণও যেমন ভদ্র লেবাসে জনসম্মুখে হাজির হয়, তেমনি অতিশয় বর্বরস্বৈরাচারীও ঘটা করে নির্বাচনের আয়োজন করে এবং সে নির্বাচন নিয়ে বড়াইও করে। সেসব নির্বাচনে মধ্যপ্রাচ্যের অনেক স্বৈর-শাসক তো শতকরা ৯৫ ভাগের বেশী ভোট-হাছিল নিয়ে গর্ব করে। এর কারণ, নির্বাচনের আলংকারিক মূল্য। তাই স্বৈরাশাসকদের আগ্রহ স্রেফ নির্বাচন নিয়ে, গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা নিয়ে নয়। স্বৈরাশাসকগণ সে অতি নিয়ন্ত্রিত নির্বাচনকে নিজেদের গণতন্ত্রি হওয়ার পক্ষে সাফাই রূপে পেশ করে। স্বাধীনতার অর্থ স্রেফ বিয়েশাদী, ঘরবাধা, খেলাধুলা ও পানাহারের স্বাধীনতা নয়, বরং সেটি রাষ্ট্র, সমাজ ও রাজনীতি নিয়ে মত প্রকাশের স্বাধীনতা নিয়ে বাঁচা। এটিই হলো গণতন্ত্রের মূল কথা। সে গণতান্ত্রিক অধিকার লুণ্ঠিত হলে তাই লুণ্ঠিত হয় স্বাধীনতা। গণতান্ত্রিক স্বাধীনতা জনগণকে দিলে তাতে বিপদ খাড়া হয়স্বৈরাচারী সরকারের বিরুদ্ধে। কিন্তু নিয়ন্ত্রিত নির্বাচনে সে ভয় থাকে না।

Last Updated on Sunday, 04 November 2018 17:26
Read more...
 
দেশের শিক্ষাঙ্গণ ও শিক্ষানীতির নাশকতা PDF Print E-mail
Written by ফিরোজ মাহবুব কামাল   
Tuesday, 30 October 2018 23:51

ইন্ডাস্ট্রি দুর্বৃত্ত উৎপাদনের

শিক্ষাঙ্গণ শুধু জ্ঞানের বিকাশই ঘটায় না; জন্ম দেয় অসত্য-অজ্ঞতা, ঘৃণা-বিদ্বেষ এবং মানবতাধ্বংসী ভয়ানক রুগ্ন ধারণারও। এগুলি পরিণত হতে পারে দুর্বৃত্ত উৎপাদনের বিশাল বিশাল ইন্ডাস্ট্রিতে। স্বৈরাচার, ফ্যসিবাদ, বর্ণবাদ, জাতিয়তাবাদ, উপনিবেশবাদ, সাম্রাজ্যবাদ এবং কম্যুনিজমের ন্যায় মানবতা-নাশক মতবাদগুলির জন্ম কোন কালেই বনজঙ্গলে হয়নি, বরং হয়েছে শিক্ষাঙ্গনে। এবং এ মতবাদগুলির নাশকতা বিষাক্ত রোগ-জীবাণু ও সুনামী-ভূমিকম্পের চেয়েও অধীক। মানব জাতির সমগ্র ইতিহাসে সবচেয়ে বেশী লোকক্ষয় রোগজীবাণু বা সুনামী-ভূমিকম্পের হাতে হয়নি। সেটি হয়েছে শিক্ষাঙ্গণে বেড়ে উঠা মানবরূপী ভয়ানক দানবদের হাতে। বিগত দুটি বিশ্বযুদ্ধেই তারা সাড়ে সাত কোটি মানুষকে হত্যা করেছে এবং শত শত নগর-বন্দরকে মাটির সাথে মিশিয়ে দিয়েছে। ঔপনিবেশিক সাম্রাজ্যবাদী শাসনকে প্রতিষ্ঠা দিতে এশিয়া, আফ্রিকা ও ল্যাটিন আমেরিকার দেশগুলোতে যারা গতহত্যা ও গণনির্মূলে নেতৃত্ব দিয়েছে তারাও কোন গুহাবাসী ছিল না; তারা শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ পেয়েছে অক্সফোর্ড, কেম্ব্রিজ ও হার্ভাডের ন্যায় বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে। ভারতের বুকে যে কোটি কোটি মানুষ গরুছাগল, শাপ-পেঁচা, পাহাড়-পর্বত ও মুর্তিকে দেবতা মনে করে, তারা কি কোন বন-জঙ্গলের বাসিন্দা? তাদের অনেকে তো কলেজ- বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রিধারী। ডিগ্রি নেয়া এবং জ্ঞানী ও বিবেকমান হওয়া যে এক নয় –তার প্রমাণ তো এ নৃশংসতার ইতিহাস।

Read more...
 
বাংলাদেশে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস এবং জিম্মি জনগণ PDF Print E-mail
Written by ফিরোজ মাহবুব কামাল   
Sunday, 14 October 2018 23:25

অধিকৃতি সন্ত্রাসীদের

বাংলাদেশের ইতিহাসে যারা নৃশংসতম সন্ত্রাসের নায়ক তারা মহল্লার চোর-ডাকাত, পেশাদার খুনি বা কোন রাজনৈতিক দলের ক্যাডার নয় সে ভয়ংকর সন্ত্রাসী শক্তি হলো দেশের সরকার বস্তুতঃ সমগ্র দেশ আজ অধিকৃত সন্ত্রাসীদের হাতে। সে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসে চাকর-বাকরের ন্যায় ব্যবহৃত হচ্ছে দেশের পুলিশ, ডিবি পুলিশ, RAB, বিজিবি এবং সেনা বাহিনীর লোক-লস্করেরা ২০১৩ সালের ৫ই মে শাপলা চত্ত্বরে নিরপরাধ মানুষ হত্যার যে নৃশংস তাণ্ডবটি হলো -সেরূপ গণহত্যার সামর্থ্য কি দেশের পেশাজীবী চোর-ডাকাত, খুনি ও সন্ত্রাসীদের আছে? স্বৈরশাসনের এটিই হলো সবচেয়ে বড় নাশকতা। যেখানে স্বৈরশাসক থাকবে অথচ সন্ত্রাসী গণহত্যা ও গণনির্যাতন থাকবে না -তা কি কখনো ভাবা যায়? কারণ, ভোটের বদলে ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য এগুলিই তো তাদের একমাত্র হাতিয়ার। সন্ত্রাস ছাড়লে ক্ষমতাও ছাড়তে হয় সেটি প্রতিটি স্বৈরাচারি শাসকই বুঝে। তাই নিরস্ত্র মানুষের বিরুদ্ধে সন্ত্রাস যেমন নমরুদ, ফিরাউন, হালাকু, চেঙ্গিজ ও সকল ঔপনিবেশিক শক্তির আমলে হয়েছে -আজও হচ্ছে। বরং পুরনো স্বৈরশাসকদের সন্ত্রাসের নীতি নতুন নৃশংসতা পেয়েছে নতুন স্বৈর শাসকদের হাতে।

Last Updated on Wednesday, 17 October 2018 18:15
Read more...
 
The Murder of Jamal Khashoggi & The Saudi Obstruction to Justice PDF Print E-mail
Written by Dr Firoz Mahboob Kamal   
Sunday, 28 October 2018 00:13

The crime & the cover-up

Initially the Saudi government denied the death of Mr Jamal Khashoggi and claimed that he has left the Saudi consulate in Istanbul alive after getting his paperwork done. But after failing to sell this lie, the Saudi authority announced that Mr Khashoggi is dead. They also told a bizarre story that he died in a fight with the staff in the consulate and the dead-body was handed to a local man for the disposal! It beggars belief! When a man dies in a fight in a civilised state, is it not the duty to call the police to take the body, do the post-mortem and find the killers for the prosecution? But the Saudi authority didn’t take that route. Instead, they pursed the most horrendous path to hide the crime. Firstly, by making a wholesale denial of the murder. Secondly, by restricting the investigation of the crime and now, blocking the enforcement of the justice in the Turkish court.

Last Updated on Sunday, 28 October 2018 00:20
Read more...
 
বাংলাদেশে আসন্ন রাজনৈতিক ভূমিকম্প এবং স্বৈরাচার নির্মূলে নয়া আশাবাদ PDF Print E-mail
Written by ফিরোজ মাহবুব কামাল   
Sunday, 23 September 2018 08:02

নির্মূলের আতংক স্বৈর মহলে

স্বৈরশাসকগণ নিজেদেরকে যতই শক্তিশালী ভাবুক না কেন, সেটি বাইরের খোলস। মনের গভীরে তারা অতি দুর্বল তাদের প্রতিটি মুহুর্ত কাটে নির্মূলের ভয়ে। নিরস্ত্র জনগণের ধাক্কায় তাদের গদি সহজেই উল্টে পড়ে। নিরস্ত্র কিশোর-বিদ্রোহেও তারা যে কতটা শিউরে উঠে -সেটি তো সম্প্রতি ঢাকার রাস্তায় দেখা গেল। সে দুর্বলতার আরো প্রমাণ মেলে সশস্ত্র সেনাবাহিনী, পুলিশ বাহিনী ও দলীয় গুণ্ডাবাহিনীর উপর সদা নির্ভরতা। অপর দিকে সরকার বৈধতা পায় এবং জনগণের মাঝে শক্ত ভিত্তি পায় জনপ্রিয়তার শিকড় থাকাতে সে শিকড়টি মজবুত হয় সংখ্যাগরিষ্ঠ জনগণের রায়ের ভিত্তিতে ক্ষমতায় আসাতে এরূপ গণতান্ত্রিক সরকারগুলো হলো জনগণের নিজস্ব সরকার; সে সরকারগুলিকে পাহারা দেয় খোদ জনগণ। এমন একটি নির্বাচিত সরকারকে হঠাতে যখনই কোন অশুভ শক্তি আঘাত হানে, তারা শুধু সরকারের নয়, জনগণেরও শত্রু রূপে গণ্য হয় কারণ সেরূপ হামলায় মারা পড়ে জনগণের নিজেদের গণতান্ত্রিক অধিকার। গণতান্ত্রিক সরকারের উপর সন্ত্রাসী হামলা তাই সভ্য সমাজে বৈধতা পায় না। সমর্থণও পায় না। তাই তুরস্কের নির্বাচিত সরকারের উৎখাতে যখন সামরিক ক্যুর চেষ্টা হয় তখন জনগণের অধিকারের উপর সে ডাকাতি রুখতে হাজার হাজার জনগণ রাস্তায় নেমে আসে অনেকে কামানের গোলায় এবং টাংকের নীচে শুয়ে প্রাণও দিয়েছে। প্রতিবাদি জনগণ ক্ষমতা ছিনতাইয়ের সে অপচেষ্ঠা এভাবেই ব্যর্থ করে দেয়।

 

Last Updated on Friday, 28 September 2018 23:09
Read more...
 
<< Start < Prev 1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 Next > End >>

Page 1 of 47
Dr Firoz Mahboob Kamal, Powered by Joomla!; Joomla templates by SG web hosting
Copyright © 2018 Dr Firoz Mahboob Kamal. All Rights Reserved.
Joomla! is Free Software released under the GNU/GPL License.